স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম নিয়োগ ২০২২

স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম নিয়োগ ২০২২ প্রকাশ হয়েছে। চাকরি প্রত্যাশিদের জন্য এটি একটি সু খবর। স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশের অন্যতম জবের একটি। স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম চাকরি মানেই স্মার্ট। এটি আকর্ষণীয় তাই চাকরি পেতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে আবেদন করুন। অতিরিক্ত তথ্য: যারা বর্তমানে LFMEAB-SEIP দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামের প্রশিক্ষণ অংশীদার শিল্পে কাজ করছেন তারা ব্যবস্থাপনার অনুমতি নিয়ে আবেদন করতে পারেন এবং লিড প্রশিক্ষক পুলের জন্য অগ্রাধিকার পাবেন। নির্বাচিত প্রার্থীদের LFMEAB-SEIP লিড প্রশিক্ষকদের পুলে অন্তর্ভুক্ত করা এবং তাদের প্রাপ্যতা সাপেক্ষে তারা যে কেন্দ্র থেকে আবেদন করেছে সেখানে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য নিযুক্ত করা যেতে পারে। বাছাই প্রক্রিয়া চলাকালীন তাদের পূর্বের অভিজ্ঞতার প্রমাণের ভিত্তিতে যে কোনো নির্দিষ্ট কোর্সে লিড প্রশিক্ষকদের নিয়োগ করা হবে।

আবেদনকারীদের জন্য নির্দেশনা সম্ভাব্য আবেদনকারীদের তাদের স্বাক্ষরিত সিভি সহ একটি কভার লেটার, তাদের শিক্ষাগত শংসাপত্রের কপি, অভিজ্ঞতার শংসাপত্র, এনআইডি এবং সাম্প্রতিক ছবি রাষ্ট্রপতি, লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (LFMEAB), LFMEAB-SEIP-এর কাছে পাঠাতে হবে। PIU, ফ্ল্যাট নং: 4A (4র্থ তলা), বাড়ি নং: 12, রোড নং: 06, BlockC, বনানী, ঢাকা-1213 কুরিয়ার/ডাক পরিষেবার মাধ্যমে/ সরাসরি উল্লেখিত ঠিকানায় বা [email protected] এ ইমেল পাঠান সমস্ত নথি একটি একক পিডিএফ ফাইলে) ইমেলের বিষয় লাইন/খামের উপরে আবেদন করার অবস্থান উল্লেখ করে। বিস্তারিত জানার জন্য, অনুগ্রহ করে দেখুন: www.lfmeab.org এবং www.seip-fd.gov.bd. স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ নিচে দেখুন।

স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম নিয়োগ ২০২২

  • সময়সীমাঃ ২৮ জুলাই ২০২২
  • পদসংখ্যাঃ বিজ্ঞপ্তি দেখুন

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ‍সেইপ নিয়োগ ২০২২

  • সময়সীমাঃ ২৩ জুন ২০২২
  • পদসংখ্যাঃ বিজ্ঞপ্তি দেখুন

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ‍সেইপ নিয়োগ ২০২২

নতুন চাকরির খবর সমূহ

Skills for Employment Investment Program Job Circular 2022

আইসিবি ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ এর অধ্যাদেশ ১৯৭৬ সালের ৪০ নং অধ্যাদেশ। এর অধীনে ১ অক্টোবর এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। একাধারে একটি বিনিয়োগ এবং মার্চেন্ট ব্যাংক। দেশের শিল্প উন্নয়নের গতিকে বেগবান, সুসংহত ও সিকিউরিটিজ মার্কেটকে সমৃদ্ধ করতে এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। কোম্পানি এর মূলধন স্বল্পতা পূরণ এ আইসিবি সহায়তা প্রদান করে। সঞ্চয় এবং বিনিয়োগ নীতিমালা এর আলোকে স্বনির্ভর। সেইপ প্রকল্প নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ এ আশা করি আপনি আগ্রহী।

অর্থনীতি গড়ে তোলার লক্ষ্যে আইসিবির ভূমিকা অনেক গুরুত্ব রয়েছে। আইসিবি প্রতিটি ১০০ টাকা মূল্যের ২ মিলিয়ন শেয়ারে বিভক্ত সর্বমোট ২০০ মিলিয়ন টাকা অনুমোদিত। তাছাড়া পরিশোধিত মূলধন নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০৯ সালে ৩১ ডিসেম্বর মাসে অনুমোদিত ও পরিশোধিত মূলধন ১০০০ মিলিয়নে যায়। ২০০৮ সাল এর ৩০ জুন আইসিবির মূলধন শেয়ার মালিকানা কাঠামো ছিল অনেক। বর্তমানে আইসিবি তিন ধরনের রিজার্ভ ফান্ড।

তিন ধরনের রিজার্ভ ফান্ড

  • জেনারেল রিজার্ভ
  • বিল্ডিং রিজার্ভ
  • লভ্যাংশ সমতাকরণ রিজার্ভ ফান্ড

উক্ত ফান্ড গুলো সংরক্ষণ করছে। ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ সাল এ তিনটি রিজার্ভ ফান্ডের ছিল ২১৪৬ মিলিয়ন টাকা। দি ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ আইন ২০০০ সালের ২৪ নং আইন। এটি বলে সাবসিডিয়ারি কোম্পানি গঠনি এবং পরিচালনার মাধ্যমে আইসিবি তার ব্যবসায়িক। কার্যক্রম পরিচালনার কৌশল এবং নীতিতে সংস্কার এনেছে। আইসিবি ঢাকা এবং চট্টগ্রাম স্টক মার্কেটে তালিকাভুক্ত রয়েছে।

প্রাথমিক পর্যায়ে আইসিবি এর কার্যাবলি বিভিন্ন কোম্পানি শেয়ার এবং ডিবেঞ্চারের প্রাথমিক ইস্যু অবলিখন। সেতু ঋণ প্রদান ও ইনভেস্টরস স্কিম পরিচালনার মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। পরবর্তী মূলধন বাজার এর চাহিদা ভিত্তিতে কর্পোরেশন কাজের পরিধি সম্প্রসারণ করে। শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপন এবং উন্নয়নে অর্থায়ন শুরু করে। বর্তমানে আইসিবি ব্যবসা এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহকে ডিবেঞ্চার লোন। আইসিবি ইউনিট সার্টিফিকেটের বিপরীতে ঋণ দিচ্ছে। আরও নতুন চাকরির খবর দেখতে bdjobsedu ভিজিট করুন।

Leave a Reply

Back to top button
error: লেখা কপি করা যাবেনা !!