সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ | moca job

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ পাবেন সবার আগে এই সাইটে। বিভিন্ন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আমরা আপনাদের মাঝে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করি যা সঠিক এবং নির্ভুল। আমাদের এখানে সরকারি বেসরকারি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পাবেন যেমন: সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, সেনাবাহিনী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, পুলিশনিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, বিভিন্ন ব্যাংকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিসহ আরো। দেরিনা করে চাকরি পেতে আজই আবেদন করুন। আরো জানতে নিচের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ দেখুন। আরও নতুন নতুন সরকারি চাকরি দেখুন www.bdjobsedu.com থেকে।

Ministry of Cultural Affairs Job Circular 20222 বেকারদের জন্য একটি বিশাল সুযোগ তৈরি করা হয়েছে। সাংস্কৃতিক বিষয়ের চাকরির পদ অনেক বিভাগে রয়েছে। যারা এই সেক্টরে কাজ করতে চান তাদের জন্য এটি একটি বিশাল সুযোগ। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় আমাদের দেশের সবচেয়ে মূল্যবান অংশ। MOCA বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় অফিস। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে চাকরির সুযোগ থাকায় যে কেউ এই সুযোগ নিতে পারেন। অন্যথায়, আপনি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.moca.gov.bd-এ যেতে পারেন।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় বন্দর সেক্টরে লোকেদের উত্তেজনাপূর্ণ কর্মজীবনের সুযোগ দেয়। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় মনে করে, তরুণ ও উদ্যমী ব্যক্তিরা আমাদের দেশে উজ্জ্বলতা সৃষ্টিকারী এ খাতে সাফল্যের চাবিকাঠি। অন্যথায়, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ বেকারত্ব রোধে একটি দুর্দান্ত ক্যারিয়ারের সুযোগ নিয়ে এসেছে।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ ২০২২

  • সময়সীমাঃ ১৪ জুলাই ২০২২
  • পদ সংখ্যাঃ বিজ্ঞপ্তি দেখুন

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

নতুন চাকরির খবর সমূহ

Ministry of Cultural Affairs Job Circular 2022

একটি আদর্শ সমাজ বিনির্মাণে সংস্কৃতির গুরুত্ব অপরিসীম স্বাধীনতার পর এটি আরো স্পষ্টত প্রতীয়মান যে দেশের ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতি সংরক্ষণ এর জন্য ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা উচিত। স্বাধীন জাতি হিসেবে বিদেশি রাষ্ট্রের সাথে সাংস্কৃতিক চুক্তি ও সাংস্কৃতিক বিনিময় কার্যক্রম এর মাধ্যেমে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করা অপরিহার্য। এই দৃষ্টিভঙ্গি থেকে একটি স্বতন্ত্র বিভাগ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর শিক্ষা মন্ত্রণালয় এর আওতায় ১৯৭২ সালে ‘সংস্কৃতি ও ক্রীড়া’ বিষয়ক একটি বিভাগ গঠন করা হয়। এ বিভাগকে ‘শ্রম ও কল্যাণ’ মন্ত্রণালয় এর সাথে সম্পৃক্ত করা হয়। একই বছরে এই বিভাগকে পুনরায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে ন্যস্ত করা হয়।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় চাকরির সার্কুলার ২০২২

১৯৭৮ সালে বিভাগটিকে ‘ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়’ হিসেবে নামকরণ করা হয়। ১৯৮৩ সালে বিভাগকে রাষ্ট্রপতির সচিবালয় এর অধীনে ন্যস্ত করা হয়। একই বছরে ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিভাগ থেকে ক্রীড়া বিষয়ক কার্যাবলিকে পৃথক করে ‘যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়’ নামে একটি নতুন মন্ত্রণালয় করা হয়। বর্তমানে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় একটি পূর্নাঙ্গ মন্ত্রণালয় হিসেবে কাজ করে চলেছে। মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে রয়েছেন জনাব কে এম খালিদ, এমপি ও সচিব হিসেবে কাজ করছেন জনাব মোঃ বদরুল আরেফীন। আমি মনে করি আপনি উপর থেকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ দেখেন।

কার্যাবলি

  • জাতীয় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, চারু-কারু ও ললিত কলার সংরক্ষণ, গবেষণা ও উন্নয়ন।
  • প্রত্নতত্ত্ব, স্থাপত্য ও ভাস্কর্য।
  • জাতীয় গ্রন্থাগার/গণগ্রন্থাগারের উন্নয়ন ও প্রবর্ধন।
  • জাতীয় জীবনের সর্বস্তরে বাংলার প্রচলনে সহায়তা/সহযোগিতা।
  • প্রাচীন ঐতিহাসিক সৌধাদি( Monument) বিশেষ করে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ ঘোষিত সৌধাদির মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণ।
  • একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস উৎযাপন।
  • একুশে ফেব্রুয়ারি পুরস্কার (একুশে পদক) প্রদান।
  • সংস্কৃতিসেবী সংগঠনের জন্য গ্রান্টস ইন এইড প্রদান।
  • সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের অঙ্গনে কার্যরত আন্তর্জাতিক সংগঠন ও তাদের বিশ্বজনীন অনুষ্ঠানমালা আয়োজনে সহায়তা।
  • জাতীয় সংস্কৃতি, ঐতিহ্য এবং চারুকলার বিকাশ ও উন্নয়নে সহায়তা প্রদান।
  • চারুকলা, সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ইত্যাদি ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য মেধা পুরস্কার/ পদক প্রদান।
  • জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্কৃতি সম্মেলন/ সভা ইত্যাদিতে অংশগ্রহণ ও আয়োজন করা।
  • সাহিত্য, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের ক্ষেত্র সংক্রান্ত প্রকাশনার উন্নয়ন সাধন।
  • সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য বিকাশের লক্ষ্যে জাতীয় সংগঠন/সংস্থা প্রতিষ্ঠা/প্রতিষ্ঠায় সহায়তা প্রদান এবং তাদের গ্রান্ট ইন এইড প্রদান।
  • বিদেশি রাষ্ট্রের সঙ্গে সাংস্কৃতিক চুক্তি সম্পাদন।
  • বিদেশি রাষ্ট্রের সঙ্গে সাংস্কৃতিক দল বিনিময়।
  • পল্লী সাহিত্য, পল্লী সংস্কৃতি ও পল্লী মিউজিয়াম প্রতিষ্ঠা।
  • সাহিত্যসেবী, শিল্পী প্রমুখদের পেনশন প্রদান।
  • আর্থিক বিষয়াদিসহ মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন পরিচালনা।
  • আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থাসমূহের প্রশাসন ও নিয়ন্ত্রণ।
  • বিদেশি রাষ্ট্র, বৈশ্বিক সংস্থা ও আন্তর্জাতিক সংগঠনের সঙ্গে এ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট বিষয়ে লিয়াজো করতঃ চুক্তি প্রণয়ন।
  • মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সকল আইন প্রণয়ন ও মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত বিষয়াদি নিষ্পত্তি।
  • মন্ত্রণালয়ের সকল বিষয়ে পরিসংখ্যান প্রণয়ন।
  • আদালত কর্তৃক গৃহীত ফি ব্যতিত এ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত বিষয়ে ফি নির্ধারণ ও আদায়।

2 Comments

Leave a Reply

Back to top button
error: লেখা কপি করা যাবেনা !!