ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

চাকরি প্রত্যাশিদের জন্য ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ প্রকাশিত হয়েছে। ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর শূন্য পদ গুলোতে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। পাসপোর্ট অধিদপ্তরে অসংখ্য পদে নিয়োগ দেবে পরে আরো শূণ্য পদ গুলোতে চাকরি দেওয়া হবে। এই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে সকল জেলার আগ্রহী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। আগামী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি গুলো পেতে হলে আমাদের সাথে থাকুন। এখানে নতুন সকল প্রকার সরকারি ও বেসরকারি চাকরির খবর দেওয়া হয়।

ডিপার্টমেন্ট অফ ইমিগ্রেশন এবং পাসপোর্ট চাকরির সার্কুলার চাকরিপ্রার্থীদের জন্য একটি বড় সুযোগ এবং পাসপোর্ট অফিসের চাকরির সার্কুলার চাকরিপ্রার্থীদের জন্য চাকরি পাওয়ার একটি দুর্দান্ত সুযোগ। আমাদের ওয়েবসাইটটি একটি ডিআইপি সার্কুলার ইমেজ ফাইল হিসাবে নীচে দেওয়া হয়েছে। পাসপোর্ট অফিস পরীক্ষার ফলাফল 2022 এর বিভিন্ন আকর্ষণীয় পোস্টের পদ দেওয়া হয়।

যাইহোক, ডিআইপি এর পূর্ণ অর্থ হল ইমিগ্রেশন এবং পাসপোর্ট বিভাগ। আপনি যদি বাংলাদেশ পাসপোর্ট অফিসের চাকরির বিজ্ঞপ্তি তৈরি করেন তাহলে শীঘ্রই আবেদন করুন। এই পোস্টে, আপনি ডিপার্টমেন্ট অফ ইমিগ্রেশন এবং পাসপোর্ট অফিসের চাকরির সার্কুলার 2022-এর মতো DIP সরকারি চাকরির বিজ্ঞপ্তিতে যোগ দিতে পারেন। কীভাবে http://dip.teletalk.com.bd অনলাইনে আবেদন করবেন তা এই পোস্টে বিশদ আলোচনা করা হল।

ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর পরীক্ষার ফলাফল ২০২২
PID Exam Result 2022

ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ ২০২২

  • সময়সীমাঃ ০৪ জানুয়ারী ২০২২
  • পদ সংখ্যাঃ বিজ্ঞপ্তি দেখুন
  • অনলাইনে আবেদন করুন নিচে থেকে

অনলাইন আবেদনের লিঙ্ক: http://dip.teletalk.com.bd
আজই আবেদন করুন ধন্যবাদ

আবেদন ফরম ডাউনলোড করুন

আপনি যদি যোগ্য হন তাহলে পুরুষ বা মহিলা প্রার্থীরা ডিপার্টমেন্ট অফ ইমিগ্রেশন এবং ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ দেখে অনলাইনে আবেদন করতে পারেন। পাসপোর্ট এবং ইমিগ্রেশন চাকরির সার্কুলার একটি অনলাইন প্রক্রিয়া। প্রথমে, ইমিগ্রেশন এবং পাসপোর্ট বিভাগের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যান। অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করুন http://dip.teletalk.com.bd লিংক থেকে।

অনলাইন আবেদনের লিঙ্ক: http://dip.teletalk.com.bd

জনপ্রিয় চাকরির খবর সমূহ

আবেদনের শর্তাবলী দেখুন এখানে

আগামী ২৪/১০/২০২১ খ্রিঃ তারিখ হতে ১১/১১/২০২১ খ্রিঃ তারিখ পর্যন্ত সময়ের মধ্যে “মহাপরিচালক, ইমিগ্রেশন ও পাসপাের্ট অধিদপ্তর, আগারগাঁও, ঢাকা-১২০৭” ঠিকানায় ডাকযােগে আবেদনপত্র পৌছাতে হবে। উল্লেখিত তারিখের পর প্রাপ্ত আবেদনপত্র গৃহিত হবে না। অগ্রিম বা হাতে হাতে কোন আবেদনপত্র গ্রহণ করা হবে না।

আবেদনকারীর বয়স ২৫ মার্চ, ২০২০ খ্রিঃ তারিখে সর্বনিম্ন ১৮ এবং সর্বোচ্চ ৩০ বছর হতে হবে। মুক্তিযােদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোেদ্ধার পুত্র-কন্যার বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩২ বছর। তবে মুক্তিযােদ্ধা/শহীদ মুক্তিযােদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যাদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ১৮ বছর থেকে ৩০ বছর।

প্রার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে বিদ্যমান কোটানীতি অনুসরণ করা হবে। মুক্তিযােদ্ধা সংক্রান্ত সনদপত্র/প্রত্যয়নপত্র গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযােদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রদত্ত হতে হবে। এতিমখানা নিবাসীদের উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নপত্র আবেদনপত্রের সাথে যুক্ত করতে হবে।

সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন কর্পোরেশনে কর্মরত প্রার্থীদের স্ব স্ব কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভা/ সিটি কর্পোরেশন এর চেয়ারম্যান/মেয়র/ওয়ার্ড কমিশনার কর্তৃক প্রদত্ত জাতীয়তা সনদপত্র, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক প্রদত্ত চারিত্রিক সনদপত্র, শিক্ষাগত যােগ্যতা, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও অভিজ্ঞতার সনদপত্র এবং সম্প্রতি তােলা ০৬(ছয়) কপি পাসপাের্ট সাইজ ছবি প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা (নামের সীলসহ) কর্তৃক সত্যায়ন করে আবেদনপত্রের সাথে দাখিল করতে হবে। আবেদনপত্রের সাথে দাখিলযােগ্য কাগজপত্র প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তার নামের সীলসহ সত্যায়িত না হলে আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।

৬। আবেদনপত্রের সাথে ‘মহাপরিচালক, ইমিগ্রেশন ও পাসপাের্ট অধিদপ্তর, আগারগাঁও, ঢাকা-১২০৭’ বরাবরে
কোড নং ১-৭৩৭৫-০০০০-২০৩১ তে ১০০ (একশত) টাকা জমার ট্রেজারি চালানের মূলকপি সংযুক্ত
করতে হবে। এক্ষেত্রে পােস্টাল অর্ডার, ব্যাংক ড্রাফট বা পে-অর্ডার গ্রহণযােগ্য হবে না।

বয়সের ক্ষেত্রে এফিডেভিট গ্রহণযােগ্য নয়।

নিয়ােগ বিজ্ঞপ্তির শর্ত পূরণ হয়নি এমন আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।

নিয়ােগ পরীক্ষার জন্য কোন ভ্রমণ ভাতা/দৈনিক ভাতা প্রদান করা হবে না।

প্রার্থীর নিজ ঠিকানা প্রাপক হিসেবে উল্লেখপূর্বক ১০ (দশ) টাকা মূল্যের ডাকটিকেটসহ ০১ (এক) টি “ফেরত খাম” আবেদনপত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।।

কোন কারণ দর্শানাে ব্যতিরেকে পদসংখ্যা হ্রাসবৃদ্ধিসহ নিয়ােগ প্রক্রিয়া বাতিল/স্থগিত করার পূর্ণ ক্ষমতা নিয়ােগকারী কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করেন।

ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর সম্পর্কে

বাংলাদেশের নাগরিকদের বিদেশে যাতায়াতে সহায়তা প্রদান এর লক্ষ্যে ১৯৬২ সালে পরিদপ্তর হিসেবে জোনাল কার্যালয় গঠিত হয়। ঢাকা এবং আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী এবং খুলনা নিয়ে বর্তমান ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর এর কার্যক্রম শুরু করা হয়। স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশে ১৯৭৩ সালে পূর্ণাঙ্গ রুপে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ঢাকায় অবস্হিত অধিদপ্তর এর প্রধান কার্যালয়। ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী ও খুলনা অফিস সমন্বয়ে কার্যালয়ের সংখ্যা হয় ৬ টি।

২০১০ সালে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরে একটি বৈপ্লবিক পরিবর্তন হয়। ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অথরিটি সংক্ষেপে আইসিএও। এর গাইডলাইন এর সঙ্গে সঙ্গতি রেখে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট এমআরপি এবং মেশিন রিডেবল ভিসা (এমআরভি) প্রদান কার্যক্রম শুরু করে। সাথে ১৯টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস স্হাপিত হলে অফিসের সংখ্যা হয় ৩৪ টি। ৬টি ভিসা সেল ও ৯টি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট সৃজিত হয়।

২০১১ সালে আরো ৩৩ টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস করা হয়। বর্তমানে দেশের প্রতিটি জেলায় পাসপোর্ট অফিস স্হাপনের কাজ শেষ করা হয়েছে। বিশ্বের ৬৫টি বাংলাদেশী মিশনে এমআরপি এবং এমআরভি প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। বর্তমানে ইমিগ্রেশন এবং পাসপোর্ট অধিদপ্তরের জনবল ১১৮৪ জন। ২০২০ সালে ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত ২,৮১,৯৬,৫৯৪ টি মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট ও ১৪,৯৮,৩১৩ টি মেশিন রিডেবল ভিসা সফলভাবে মুদ্রণ করা হয়েছে।

আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস নির্মাণ প্রকল্প

  • প্রকল্পের নামঃ বিভিন্ন জেলা ও বিভাগীয় শহরে ১১টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস নির্মাণ।
  • প্রকল্প মেয়াদঃ জুলাই ২০১০ হতে জুন ২০১৪ পর্যন্ত।
  • অনুমোদিত প্রকল্প ব্যয়ঃ ৬৬৪৪.৩১ লক্ষ টাকা।
  • প্রকৃত ব্যয়ঃ ৬৩১৯.৩৮ লক্ষ টাকা।
  • প্রকল্প এলাকাঃ গোপালগঞ্জ, রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ, হবিগঞ্জ ফরিদপুর, রংপুর, খুলনা, ময়মনসিংহ, বরিশাল, সিলেট ও ঢাকা।
  • বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষঃ বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর ও গণপূর্ত অধিদপ্তর
  • প্রতিটি ভবনের আয়তনঃ জেলা পর্যায়ে: প্রায় ৯৯৩৭ বর্গ ফুট।বিভাগীয় পর্যায়ে: প্রায় ১১০৬৯.০০ বর্গফুট।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ময়মনসিংহ ও গোপালগঞ্জ এবং বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস রাজশাহী ও রংপুর ভবনের শুভ উদ্ভোধন করেন আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস।১৯টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস নির্মাণ প্রকল্প

  • প্রকল্পের নামঃ১৯টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস নির্মাণ
  • মেয়াদঃ জানুয়ারী ২০১২ হতে ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত।
  • ব্যয়ঃ ১৪৬৭৫.৫৪ লক্ষ টাকা।
  • এলাকাঃ যাত্রাবাড়ী, উত্তরা, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, নরসিংদী, বগুড়া, পাবনা, দিনাজপুর, পটুয়াখালী, কক্সবাজার, চট্টগ্রামের চান্দগাঁও, ব্রাহ্মনবাড়ীয়া, ফেনী, চাঁদপুর, কিশোরগঞ্জ, মৌলভীবাজার, কুষ্টিয়া, টাঙ্গাইল ও রাঙ্গামাটি।
  • প্রতিটি ভবনের আয়তনঃ ৮৮২৬ বর্গফুট। (উত্তরা ও যাত্রাবাড়ী ১৫০০০ বর্গফুট)।
  • বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষঃ বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর ও গণপূর্ত অধিদপ্তর।
  • জুন/২০১৪ পর্যন্ত ব্যয়ঃ ২৯৯৭.৪০ লক্ষ টাকা।
  • ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরে বরাদ্দঃ ৩০০০.০০ লক্ষ টাকা।
  • চলতি অর্থ বছরে মার্চ/২০১৫ পর্যন্ত ব্যয়ঃ ২৯২৫.৭৯ লক্ষ টাকা।
  • চলতি অর্থ বছরে অগ্রগতির হারঃ ৯৭.৫৩%
পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ সামঞ্জস্য

সরকারি চাকরি, সরকারি চাকরি ২০২২, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর অধিদপ্তর চাকরির খবর ২০২২, নতুন চাকরির খবর, নতুন চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আজকের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, প্রতিদিনের চাকরির খবর, প্রতিদিনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২, প্রথমআলোর চাকরি বাকরি পত্রিকা, টুডে জব সার্কুলার, বিডি জবস সার্কুলার, সাপ্তাহিক চাকরির ডাক পত্রিকা, বাংলাদেশের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, কম্পিউটার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২, কৃষি মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২, চাকরির পত্রিকা, নিয়োগ সার্কুলার, সাপ্তাহিক চাকরির সংবাদ পত্রিকা, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ, dip job circular 2022, passport office job circular 2022, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, passport immigration job circular, department of immigration and passport job circular.

Leave a Reply

Back to top button
error: লেখা কপি করা যাবেনা !!