আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১

আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১ প্রকাশ পেয়েছে। আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল ইনস্টিটিউট সংক্ষেপে এএফএমআই। এটি হচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেডিকেল কোরের সদস্যদের জন্য এটি একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ১৯৭৬ সালে ২ জানুয়ারি মাসে এটি তৈরি হয়। এটা তৈরি করার উদ্দেশ্য ছিলো মেডিকেল কোরের অফিসার এবং অন্যান্য সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেওয়া। এছাড়া এটি সেনাবাহিনীর নার্সদেরও প্রশিক্ষণ দেয়। এছাড়া সকল প্রকার চাকরির খবর পেতে নিয়োমিত চোখ রাখুন। সকল আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ও চাকরির খবর এখানে দেওয়া হয়।

আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ ভর্তি

  • আবেদন শুরুঃ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১
  • সকালঃ ১০.০০ থেকে
  • আবেদন শেষঃ ১২ মার্চ ২০২১
  • বিকালঃ ০৪.০০ পর্যন্ত
  • অনলাইনে আবেদন করুন

আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১

জনপ্রিয় শিক্ষা সংবাদ সমূহ

Armed Forces Medical College (AFMC) Admission 2020-2021

১৯৯৯ সালের ২০ জুন ৫৬ জন মেডিকেল ক্যাডেট নিয়ে এটির প্রশাসনিক কার্যক্রম শুরু হয়। এটি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এর অধীন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় অনুমোদিত ও বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেণ্টাল কাউন্সিল স্বীকৃত। চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ে প্রতিবৎসর ১০০ জন করে ছাত্র ভর্তি করানো হয় ও ২০০৮ সাল পর্যন্ত এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ছিল। ২০০৯ সাল থেকে বাংলাদেশ এটি ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস-এর অধিভুক্ত হয়। সশস্ত্র বাহিনী মেডিকেল কলেজের লক্ষ্য এমবিবিএস ডিগ্রির জন্য বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) কর্তৃক প্রদত্ত সিলেবাস অনুযায়ী যথাক্রমে পাঁচটি শিক্ষাবর্ষের জন্য এএমসি ক্যাডেট এবং এএফএমসি ক্যাডেট নামে বিশেষভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের দুটি গ্রুপকে প্রশিক্ষণ দেওয়া। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ এবং সশস্ত্র বাহিনীর পাশাপাশি জাতির জন্য একটি গ্রুপের উচ্চমানের কেরিয়ারের ডাক্তার তৈরি করা।

উদ্দেশ্য

  • মেডিকেল গ্র্যাজুয়েটদের বাংলাদেশের মানুষের প্রতিরোধমূলক পাশাপাশি নিরাময়মূলক স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের দায়িত্ব পালন করার জন্য বায়োমেডিকাল বিজ্ঞান শেখানো।
  • দায়িত্ব, অনুগ্রহ, সহনশীলতা, ধৈর্য এবং মমত্ববোধের অনুভূতিতে নিমগ্ন ভাল শৃঙ্খলাবদ্ধ, স্ব-অনুপ্রাণিত এবং নিবেদিত ডাক্তার উৎপাদন করা।
  • মৌলিক সামরিক প্রশিক্ষণের সেই দিকগুলি সরবরাহ করার জন্য প্রতিটি ক্যাডেটকে উচ্চ শৃঙ্খলাবদ্ধ, শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ, নৈতিক ও নৈতিকভাবে খাঁটি এবং পেশাদারভাবে নিবেদিত মেডিকেল গ্র্যাজুয়েটগুলিতে এবং বাইরে উভয় প্রতিকূল শারীরিক এবং মনো-সামাজিক পরিবেশে স্বাস্থ্যসেবা পরিষেবাদি সরবরাহ করতে সক্ষম হওয়াতে পরিণত করা প্রয়োজন। দেশ এবং যুদ্ধ এবং শান্তির সময়।
  • জাতির বিশ্বাস, মূল্যবোধ ও আদর্শকে সঞ্চারিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশের সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থার বিস্তৃত জ্ঞান জাগানো।
  • প্রয়োজনীয় চরিত্রগত গুণাবলীর বিকাশ, ন্যায়নিষ্ঠতার বোধ এবং দুর্দশাগ্রস্ত মানবতার পরিবেশন করার একটি প্রাথমিক আকাঙ্ক্ষা বজায় রাখা।

Leave a Reply

Back to top button
error: লেখা কপি করা যাবেনা !!